২৮০৪ দিন পর ফিরলেন শ্রীশান্ত, শেষ বলে কিছু নেই!

প্রকাশিত: ১:৪৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২১

২৮০৪ দিন পর ফিরলেন শ্রীশান্ত, শেষ বলে কিছু নেই!

জুবায়ের আহমেদ:

ক্রিকেট যেমন দুহাত ভরে দেয়, তেমনি তার মর্যাদা ধরে রাখতে না পারলে ক্রিকেট মুখ ফিরিয়েও নেয়। ভারতের হয়ে টি২০ ও ওয়ানডে বিশ্বকাপজয়ী পেসার শান্তনুকুমার শ্রীশান্তের চেয়ে তা আর ভালো কে বুঝে। ২০১৩ সালের আইপিএলে ফিক্সিং কান্ডে নিষিদ্ধ হয়ে ক্রিকেট থেকে দূরে সরে যাওয়া শ্রীশান্ত অবশেষে ফিরলেন দীর্ঘ প্রায় ৮ বছর ও দিনের হিসেবে ২৮০৪ দিন পর।

 

চলমান সৈয়দ মুস্তাক আলী ট্রফি টি২০ লীগে গতকাল গ্রুপ ই’র ডে নাইট ম্যাচে কেরেলার হয়ে দীর্ঘ ২৮০৪ দিন পর স্বীকৃত ক্রিকেটে ফিরেই দলের জয়ে অবদান রেখেছেন। ৪ ওভার বোলিং করে মাত্র ২৯ রান দিয়ে ১ উইকেট শিকার করেন শ্রীশান্ত। দীর্ঘদিন পর ফেরার ম্যাচে পুদোচেরির ফাবিদ আলমকে সরাসরি বোল্ড করেন তিনি।

 

৩৮ বছর বয়সী পেসার শ্রীশান্ত স্বীকৃত ক্রিকেটে ফিরেই সন্তুষ্ট নন। প্রায় অসম্ভব কাজ তথা জাতীয় দলে ফেরারও স্বপ্ন দেখেন এখনো। পেসারদের জন্য ৩৮ বছর বয়সে ক্রিকেট চালিয়ে যাওয়া বেশ কঠিন। এই বয়সে অবসর নিয়ে ফেলেন পেসাররা। তার উপর দীর্ঘ ৮ বছর স্বীকৃত ক্রিকেটের বাহিরে থেকে পুনরায় ফিরে আসা চাট্টিখানি কথা নয়। শ্রীশান্ত ফিরে আসার দারুণ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। ইচ্ছা শক্তি থাকলে শেষ বলে কিছুই নেই তাই প্রমাণ করেছেন। জাতীয় দলে ফেরা না হোক, দীর্ঘ ৮ বছর পর স্বীকৃত ক্রিকেটে ফেরাও দারুণ ব্যাপার।

 

উল্লেখ্য ভারতের হয়ে ২০০৬ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন শ্রীশান্ত। ২০০৭ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলা না হলেও একই বছর অনুষ্ঠিত টি২০ বিশ্বকাপে খেলেছেন। দলকে চ্যাম্পিয়ন করতে বল হাতে অনবদ্য ভূমিকা রেখেছেন শ্রীশান্ত। ২০১১ সালে ভারতের বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য ছিলেন শ্রীশান্ত। খেলেছেন ২টি ম্যাচ।

 

জাতীয় দলের হয়ে ২৭টি টেস্ট খেলে ৮৭ উইকেট, ৫৩ ওয়ানডে খেলে ৭৫ উইকেট ও ১০ টি২০ ম্যাচ খেলে ৭ উইকেট শিকার করেছেন।

 

২০১৩ সালে আইপিএলে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ শ্রীশান্তকে গ্রেফতার করে ভারতীয় পুলিশ। ফলে বিসিসিআই শ্রীশান্তকে আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ করে। ২০১৫ সালে আদালত কর্তৃক নির্দোষ প্রমাণিত হন শ্রীশান্ত। ২০১৮ সালে কেরালা হাইকোর্ট বিসিসিআইকে আজীবন নির্বাসনের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করার নির্দেশনা দিলে পরের বছর একই মামলায় সুপ্রীম কোর্ট শ্রীশান্তকে দোষী বললেও বিসিসিআইকে শাস্তি কমানোর নির্দেশ দেন। আর শীর্ষ আদালতের নির্দেশেই শ্রীশান্তর শাস্তি আজীবন নির্বাসন থেকে ৭ বছরে নেমে আসে এবং শাস্তি ৭ বছর হয়ে যাওয়ায় ২০২০ সালেই ক্রিকেট ফিরতে আর কোন বাধা থাকেনি শ্রীশান্তর।

Like Us On Facebook

Facebook Pagelike Widget
error: Content is protected !!