ধূমপানে বাঁধা দেয়ার কারন জানালেন অভিযুক্ত বারেক

প্রকাশিত: ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৮, ২০২০

ধূমপানে বাঁধা দেয়ার কারন জানালেন অভিযুক্ত বারেক

স্বপ্ন ঘুড়ি ডেস্ক:এক জোড়া তরুণ-তরুণী একসাথে বসে সিগারেট টানছিলেন। এই সময় এক ব্যক্তির বাধা দেয়া এবং উপস্থিত লোকজন ভিডিও করে ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার পরই আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে তা নিয়ে।

 

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘটনাটি ভাইরাল হওয়ার পর অভিযুক্ত ব্যক্তির পরিচয়ও পাওয়া গেছে। গণমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন অভিযুক্ত শহিদ হোসেন বারেক।

 

বারেক একটি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘একজন মেয়ে মানুষ প্রকাশ্যে সিগারেট খাচ্ছিলো। এটা খারাপ দেখা যাচ্ছিলো। পরিবেশ নষ্ট হচ্ছিলো। পাড়ার মেয়েরা খারাপ হয়ে যেতে পারে। তাই ভালোভাবে নিষেধ করেছি। উঠে যেতে বলেছি।’

 

পুরুষদের সিগারেট খেতে নিষেধ করেন না কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‌‘ছেলে-মেয়ের মধ্যে পার্থক্য আছে। ছেলেদের নিষেধ করা যায় না। কিন্তু মেয়েরা প্রকাশ্যে সিগারেট খেলে খারাপ লাগে।’

 

নারী-পুরুষের সমান অধিকারে বিশ্বাস করেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, কর্মক্ষেত্রে সমান অধিকার। কিন্তু অন্য ক্ষেত্রে না। আপনার কী মনে হয়, আমি খারাপ কিছু করেছি? একজন সাংবাদিক হয়ে আমাকে এ প্রশ্ন করেন কিভাবে? প্রশ্ন করেই নামাজে যাবেন বলে ফোন কেটে দেন বারেক। নামাজের পর অসংখ্যবার ফোন করলেও বারেক আর ফোন ধরেননি।

পুলিশও এই ব্যক্তির খোঁজ করছেন বলে জানিয়েছে নগর পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক। তিনি বলেন, ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত তা জানতে পুলিশ খোঁজ নিচ্ছে।

সূত্র-সময় নিউজ।