ক্ষমতার রাজনীতি: সন্ত্রাসী কর্মকান্ড আর চাই না

প্রকাশিত: ২:১৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৩, ২০২০

ক্ষমতার রাজনীতি: সন্ত্রাসী কর্মকান্ড আর চাই না

জুবায়ের আহমেদ:

১৯৪৭ সালে ভারত বিভাগের পর থেকেই পাকিস্তানী শাসকদের রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বলিষ্ঠ ও তেজদীপ্ত নেতৃত্বে ধীরে ধীরে সব বাধা অতিক্রম করে ১৯৭১ আসে কাঙ্খিত বিজয়। ৩০ লাখ শহীদের তাজা রক্তের বিনিময়ে বিশ্বের বুকে প্রতিষ্ঠা পায় ৫৬ হাজার বর্গমাইলের বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাওলানা হামিদ খান ভাসানী, হোসেন শহীদ সোহরওয়ার্দী, একে ফজলুল হক সহ অন্যান্য নেতারা মানুষের অধিকার বাস্তবায়ন এবং সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই সংগ্রাম করেছেন। সেই বাংলায় আজ রাজনীতি ও ক্ষমতার নামে মানুষ খুন করা, গুম করা সহ আগুন সন্ত্রাসের মাধ্যমে জনগনের জান ও মাল এবং সরকারী সম্পত্তির ক্ষতিসাধনের মাধ্যমে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করার মতো বহু ঘটনা ঘটছে অহরহ।

 

বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক দেশ। আর গণতান্ত্রিক দেশে বিরোধ দল দ্বারা শান্তিপূর্ণ হরতাল কিংবা অন্যান্য রাজনৈতিক কর্মসূচী স্বাভাবিক বিষয় হলেও আমরা দেখেছি রাজনৈতিক কারনে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরী হতে দেশব্যাপী। রাস্তাঘাটে যানবাহন, দোকানপাট সহ বিভিন্ন স্থাপনায় আগুণ ধরিয়ে অরাজকতার পরিস্থিতি সৃষ্টি করার মতো জঘন্য ঘটনাগুলোতে কারা জড়িত, তার কোন সুরাহা হয় না শুধুমাত্র দোষারূপের রাজনীতির চর্চার কারনে। জাতীয় কিংবা স্থানীয় নির্বাচন, ক্ষমতা আর স্বার্থ জড়িত, এমন যেকোন নির্বাচনের আগে-পরে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড লক্ষ্য করা যায় বাংলাদেশে। যার দায় কেউ নেয় না, নিচে চায় না। সরকার বিরোধী দলকে দোষারূপ করা সহ গ্রেফতারকৃতদের বিরোধী দলের রাজনীতির সাথে জড়িত মর্মে প্রকাশের পর বিরোধী দল ছুটে দেয় পাল্টা মন্তব্য। সরকার নিজেই এসব করাচ্ছে মর্মে মন্তব্য করে তারা। ফলে কারা প্রকৃত অপরাধী, তা জনগনের নিকট প্রকাশ হয় না এবং সন্ত্রাসী কর্মকান্ডও বন্ধ হয় না।

 

২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে দেশব্যাপী আগুন সন্ত্রাস ছিলো ভয়াবহ। ক্ষমতাশীন দল বিরোধী পক্ষকে দোষারূপ করা সহ অভিযুক্তদের অনেককে গ্রেফতার করে শাস্তির আওতায় আনলেও বিরোধী পক্ষ উল্টো দোষারূপ করেছে স্বয়ং ক্ষমতাশীন দলকে। রাজনৈতিক দলগুলোর এমন কাঁদা ছুড়াছুড়ির ফলে সাধারণ নাগরিকদের সীমাহীন দূর্ভোগে পতিত হতে হয়েছে। ভয় ও আতংক নিয়ে চলাফেরা করতে হয়েছে রাস্তাঘাটে। অপরাধীদের গ্রেফতার করার ধারাবাহিকতায় বহু নিরীহ মানুষও পুলিশী হয়রানির শিকার হয়েছে। শুধুমাত্র ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনের আগে ও পরেই নয়, স্বাধীন বাংলাদেশের প্রতিটি নির্বাচনের আগে ও পরেই সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের ফলে নাগরিকদের ক্ষতিসাধন হয়েছে। ক্ষতি হয়েছে রাষ্ট্রীয় স্থাপনা ও সম্পদের। সেই সাথে ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে অনেকেই ধরাকে সরাজ্ঞান করে খুন ও গুমের মতো ঘটনা ঘটাচ্ছে ব্যক্তি স্বার্থ হাসিলের লক্ষ্যে।

 

সাধারণ নাগরিকরা জাতীয় নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে কোন এক দলকে ক্ষমতায় বসালেও তাদের অধিকাংশই সরাসরি রাজনীতির সাথে জড়িত নন। তারা চান যারাই ক্ষমতায় থাকুক না কেনো, দেশ ভালো চলুক, দেশের উন্নয়ন হোক এবং নাগরিকের সকল অধিকার যেনো বাস্তবায়ন করা হয়, নাগরিকরা যেনো নির্বিঘেœ স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারেন। কিন্তু আমরা বিগত বছরগুলোতেও দেখেছি জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে ও পরে এবং বছর জুড়েই রাজনেতিক সহিংসতা বিদ্যমান ছিলো। ২০১৪ সালের নির্বাচনের পরে আগুন সন্ত্রাস এবং হরতাল খুব বেশি না হলেও সর্বশেষ ঢাকায় একটি উপ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আগুন সন্ত্রাসীদের তান্ডব লক্ষ্য করা গেছে। সেখানেও প্রকৃত অপরাধীদের ধৃত করা সম্ভব হয়নি। ক্ষমতাশীন দল ও বিরোধী দলগুলো একে অপরকে দোষারূপ করেছে।

 

দেশের সাধারণ মানুষ শান্তি যায়, শান্তিতে বসবাসের নিশ্চয়তা চায়। তাদের সরকারে কে থাকলে না থাকলো এসব নিয়ে মাথা ব্যথা নেই। সরকারও মানুষের অধিকার বাস্তবায়ন, নির্বিঘেœ শান্তিপূর্ণ বসবাসের নিশ্চয়তা, বাধাবিপত্তিহীন ব্যবসা বানিজ্য করার নিশ্চয়তা এবং দেশের কাঙ্খিত উন্নতি ঘটানোর মাধ্যমে দেশকে একটি আদর্শ রাষ্ট্র হিসেবে গড়ার অঙ্গীকার করার মাধ্যমেই ক্ষমতায় আসেন এবং ক্ষমতায় থাকেন। এই অবস্থায় ক্ষমতার রাজনীতির হানাহানি, রেসারেশির মাঝে জনগনের জান ও মালের ক্ষতি হয় এবং সরকারী স্থাপনা-সম্পত্তির ক্ষতি হয়, সর্বোপরি দেশের কাঙ্খিত উন্নয়নের বদলে পিছিয়ে যাওয়া রোধ করতে হবে সরকারকেই। বিগত দিনগুলোর মতো খুন, গুম ও আগুন সন্ত্রাস আমরা আর দেখতে চাই না। আমরা চাই, বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে সোনার বাংলাদেশ গড়তে চেয়েছিলেন, তার পূর্ণ বাস্তবায়ন।

 

শিক্ষার্থী
ডিপ্লোমা ইন জার্নালিজম
বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব জার্নালিজম অ্যান্ড ইলেকট্রনিক মিডিয়া (বিজেম)
কাটাবন, ঢাকা

Like Us On Facebook

Facebook Pagelike Widget
error: Content is protected !!